টেকইনফো এ-আই https://www.techinfoai.com/2022/08/probashi-kallyan-bank-loan-system.html

প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক লোন নিয়ম ২০২২

প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক লোন নিয়ম ২০২২

প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক লোন নিয়ম 2022 => আপনি কি প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক থেকে লোন নিতে চান? আমাদের মাঝে অনেক প্রবাসী ভাইয়েরা রয়েছেন যারা কিনা এই লোনটি নিতে চাই। কিন্তু প্রবাসী ভাই-বোনেরা জানে না যে এই লোনটি তারা কিভাবে নিবে আর আপনি হলেন তাদের মধ্যে একজন। তাই এই আর্টিকেলটি সম্পূর্ণ পড়ে জেনে নিন এই প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক লোন কিভাবে নিতে হয়।

আবার ধরুন যে আমাদের মধ্যে এরকম অনেকেই রয়েছেন যারা কিনা প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক লোন নেওয়ার চিন্তাভাবনা করে থাকেন । কিভাবে নিবেন প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক লোন সভা? আমরা প্রায় সকলেই জানি যে প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংকে খুব বেশি পরিমাণে সুবিধা অনুযায়ী লোন নেয়া সম্ভব। কিন্তু কিভাবে লোন নেয়া যায়? সে সম্পর্কে আমরা তেমন একটা ধারণা রাখিনা

তবে আজকের এই আর্টিকেলের মূলত আলোচনা করা হবে প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক এর সমস্ত লোন সেবা সম্পর্কে এবং কিভাবে লোন নিবেন, ব্যাংক লোন ফরম, প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক লোন নিয়ম, প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক লোন সুবিধা, প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক লোন অনলাইন আবেদন,  প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক লোন ২০২২ ইত্যাদি সম্পর্কে আলোচনা করা হবে। এছাড়াও আমরা কীভাবে লোন বা ব্যাংক লোনের ফর্ম পেতে পারি তার সমস্ত তথ্যও আলোচনা করেছি।

আরও পড়ুনঃ  ডাচ বাংলা ব্যাংক একাউন্ট খোলার নিয়ম ২০২২

    প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক লোন এবং এর প্রকারভেদ

    প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক লোন এবং এর প্রকারভেদ

    এই পর্যায়ে আমরা জেনে নিবো যে প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক কি কি লোনগুলি প্রদান করে এবং সেই সাথে প্রবাসী কল্যাণ লোন গুলির সমন্ধে বিস্তারিত তুলে আলোচনা করবো আপনাদের সাথে।

    • অভিবাসী ঋণ প্রদান
    • পুনর্বাসন ঋণ
    • বঙ্গবন্ধু অভিবাসী  বৃহৎ পরিবার ঋণ
    • বিশেষ পুনর্বাসন ঋণ

    এই চারটি প্রকল্প অনুসারে, আপনি প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক থেকে এই লোন  নিতে পারেন আর যেকোনো গ্রাহক এই লোন নিতে পারেন।

    1. অভিবাসী ঋণ প্রদান

    প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক লোন নিয়ম জেনে আপনিও সেটি নিতে পারেন খুব সহজেই। তাই বলছি আপনি কি অভিবাসী ঋণের সুবিধা নিতে চান বা এর সুবিধাগুলি উপভোগ করতে চান? তাহলে নীচে দেওয়া প্রতিটি প্রয়োজনীয় তথ্য গুলি মনযোগ সহকারে পড়ুন।

    অভিবাসী ঋণ নেওয়ার যোগ্যতা:

    আপনার নিকটাত্মীয় বা নিয়োগকর্তার  মাধ্যমে যদি আপনি বিদেশে কর্মসংস্থানের জন্য ভিসা পেয়ে থাকেন তাহলে আপনি অভিবাসী ঋণ নিতে পারবেন ।

    1. আপনার অনুপস্থিতিতে আপনার আত্মীয়রা আপনার ঋণ চালাতে সক্ষম হওয়া উচিত।
    2. জামিনদার ব্যক্তির অবশ্যই আর্থিক ব্যবস্থা ভালো থাকতে হবে।
    3. ভিসা যাচাই করার জন্য আবেদনকারীকে অবশ্যই দুটি ফটোকপি এবং একটি ফোন নম্বর প্রদান করতে হবে, যাতে আপনি তিন কার্যদিবসের মধ্যে আপনার লোন নিশ্চিত করতে পারেন।
    4. এই লোন নেওয়ার জন্য আবেদনকারীকে বিদেশের কর্মস্থলের ঠিকানা, টেলিফোন নম্বর দিতে হবে(না দিলেও হবে বাধ্যতামূলক নয়)

    অভিবাসী ঋণ সীমা

    প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক লোন এর পরিমান যদি আপনি জেনে না থাকেন তাহলে জেনে নিন যে নতুন ভিসার ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ ঋণ সীমা হলো তিন লক্ষ টাকা আর রি-এন্ট্রি ভিসার ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ ঋণ সীমা হলো দুই লক্ষ টাকা।

    অভিবাসী ঋণের মেয়াদ

    নতুন ভিসার ক্ষেত্রে ঋণের সর্বোচ্চ মেয়াদ হলো তিন বছর আর রি-এন্ট্রি ভিসার ক্ষেত্রে ঋণের সর্বোচ্চ মেয়াদ হলো দুই বছর।

    অভিবাসী ঋণ ধাপের পরিশোধসূচী

    • এই লোন নেওয়ার জন্য ২ মাস গ্রেস পিরিয়ড বাদ দিয়ে মাসিক কিস্তিতে পরিশোধযোগ্য হতে হবে।
    • এই লোনের শতকরা সুদের হার ৯ টাকা।
    • ঋণ পরিষদ অনুযায়ী আরব আমিরাত, কাতার, ইতালি, ইউরোপ, সৌদি আরব ইত্যাদি সর্বোচ মেয়াদকাল সাধারণত ২ বছর হয়।
    • অভিবাসী ঋণ পরিশোধ অনুযায়ী সর্বোচ্চ মেয়াদকাল হলো ১ বছর।

    অভিবাসী ঋণ ডকুমেন্ট

    আপনি কি অভিবাসী ঋণ ডকুমেন্ট সমন্ধে জানতে চান তাহলে নিচে দেওয়া প্রয়োজনীয় তথ্যগুলো পড়ুন:

    1. আপনি যদি ঋণ নিতে চান তাহলে ব্যাংকের যেকোনো শাখার দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের কাছ থেকে আবেদনপত্র সংগ্রহ করতে হবে।
    2. আবেদনকারীকে তার পরিচয়পত্রের পাশাপাশি সর্বশেষ দুই কপি ছবি প্রদান করতে হবে।
    3. আবেদনকারী ব্যক্তির স্থানীয় ঠিকানা এর কাগজ প্রদান করতে হবে।
    4. এই লোনটি নেওয়ার জন্য আবেদনকারী জামিনদারের দুই কপি ছবি এবং স্বত্বাধিকার সূত্রে যাবতীয় পরিচয়পত্র এর কাগজপত্র প্রদান করতে হবে।
    5. এছাড়ও আবেদনকারীকে তার শারীরিক যোগ্যতার সার্টিফিকেট এর কাগজপত্র প্রদান করতে হবে।
    6. লোন নেওয়ার সময় ব্যক্তিকে বীমা সুবিধা নিতে হবে।

    প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক ঋণ পরিশোধের চার্জ এবং সময়সীমা

    1. এই লোনের শতকরা সুদের হার ৯ টাকা।
    2. আপনার ভিসার মেয়াদ অনুযায়ী ঋণ পরিশোধের সময়সীমা নিধারণ করা হবে। এই লোনের সময়সীমা হলো ২ বছর।
    3. আবেদনকারী ব্যক্তি ঋণ নেওয়ার পরে, লোনটি ব্যাংকের নিয়ম অনুযায়ী মাসিক কিস্তিতে পরিশোধ করতে পারবে।

    বিদেশগামী কর্মীদের সহজ শর্তে জামানতবিহীন অভিবাসন ঋণ গ্রহণের প্রয়োজনীয় কাগজ বা ডকুমেন্ট

    1. ঋণ নেওয়ার আবেদনকারীকে ৪ কপি পাসপোর্ট সাইজ ছবি প্রদান পড়তে হবে। 
    2. ব্যাংকের নির্ধারিত আবেদন ফরমে আবেদন দাখিল করতে হবে।
    3. এছাড়াও আবেদনকারীকে তার পরিচয়পত্রের ফটোকপি ও প্রদান করতে হবে।
    4. এই লোন নেওয়ার জন্য আবেদনকারীকে তার বর্তমান ঠিকানা এবং স্থায়ী ঠিকানাসহ পৌরসভা/ইউনয়ন পরিষদের সার্টিফিকেট এর ফটোকপি প্রদান করতে হবে।
    5. এই লোন নেওয়ার জন্য আবেদনকারীর পাসপোর্ট, ভিসার কপি ও ম্যানপাওয়ার স্মার্ট কার্ডের ফটোকপি এবং লেবার কন্ট্রান্ট পেপার প্রদান করতে হবে(এটি বাধ্যতামূলক নয়)
    6. এই লোন নেওয়ার জন্য জামিনদারদের যে-কোনো ১ জনের স্বাক্ষরকৃত ব্যাংকের ৩ টি চেকের পাতা প্রদান করতে হবে।
    7. ঋণ গ্রহণের আগে ওই ব্যাংকের সংশ্লিষ্ট শাখায় হিসাব খুলতে হবে।
    8. এই লোন নেওয়ার জন্য ২ জন জামিনদারের ১ কপি করে পাসপোর্ট সাইজের ছবি, জাতীয় পরিচয়পত্রের ফটোকপি, বর্তমান ঠিকানা এবং স্থায়ী ঠিকানাসহ পৌরসভা/ইউনিয়ন পরিষদের সার্টিফিকেট এর ফটোকপি প্রদান করতে হবে।

    2. পুনর্বাসন ঋণ

    আপনি কি কৃষি প্রকল্পের জন্য ঋণ নিতে চান? তাহলে আপনি প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক থেকে এই পুনবার্সন ঋণ নিতে পারবেন:

    1. এই ঋণ নিয়ে আপনি গরু মোটাতাজাকরণ প্রকল্প
    2. হাঁস-মুরগির খামার প্রকল্প
    3. মাছ চাষ প্রকল্প
    4. কৃষি ঋণ প্রকল্প
    5. মাঝারি ধরণের কৃষি নির্ভর শিল্প ঋণ প্রকল্প
    6. দুধ উৎপাদনকারী খামার প্রকল্প
    7. নারী উদ্যোক্তাদের জন্য বিভিন্ন ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প প্রকল্প
    8. একটি বাড়ি খামার প্রকল্প
    9. তথ্য প্রযুক্তি নির্ভর উদ্যোক্তা ঋণ প্রকল্প
    10. বায়োগ্যাস প্লান্ট প্রকল্প
    11. সৌর জ্বালানি খাত প্রকল্প

    পুনর্বাসন ঋণ নেওয়ার যোগ্যতা

    এই লোন পেতে, আবেদনকারীকে বিদেশে ফিরে আসতে হবে এবং ফেরত আসার পর বৈধ কাগজপত্রসহ ৫ বছরের মধ্যে তাকে আবেদন করতে হবে।

    • ঋণগ্রহীতাকে বন্ধককৃত সম্পত্তির মালিকানা দলিল এবং অন্যান্য প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট প্রদান করতে হবে।
    • পুনর্বাসন ঋণ পেতে, আবেদনকারীকে অবশ্যই বিদেশ থেকে প্রত্যাগমনকারী হতে হবে
    • ঋণ পরিশোধের এফিডেভিট যে আপনি সময়মতো ব্যাঙ্কে আপনার ঋণ পরিশোধ করবেন
    • পুনর্বাসন ঋণ গ্রহণের প্রয়োজনীয় কাগজপত্র
    • এই লোনটি পাওয়ার জন্য আবেদনকারীকে তার বর্তমান ভোটার আইডি কার্ডের পাশাপাশি সর্বশেষ তিন কপি ছবি প্রদান করতে হবে।
    • এছাড়াও আবেদনকারী ব্যক্তির স্থানীয় ঠিকানা শনাক্তকরণ এর জন্য কাগজও প্রদান করতে হবে।
    • প্রকল্পের স্থান হিসেবে বেছে নেওয়া জায়গাটি যদি তাদের নিজস্ব জায়গা হয়, তাহলে তাদের ডকুমেন্ট সরবরাহ করতে হবে এবং ভাড়া নেওয়া হলে তাদের চুক্তির ফটোকপি প্রদান করতে হবে।
    • আবেদনকারীকে অবশ্যই বিদেশ থেকে প্রত্যাগমনের প্রয়োজনীয় কাগজপত্র প্রদান করতে হবে।
    • এই প্রকল্পের জন্য যারা জামিনদার হবেন তাদের সকলকে ভ্যালিড কাগজপত্র প্রদান করতে হবে
    • এছাড়াও আপনাকে আরও অন্যান্য যোগাযোগের বিশদ প্রদান করতে হবে।

    পুনর্বাসন ঋণ পরিশোধের চার্জ

    এই লোনের শতকরা সুদের হার ০৯ টাকা। এই প্রকল্পের ধরণ অনুযায়ী আপনার ঋণ পরিশোধের সময়সীমা ও অর্থ সীমা নিধারণ করা হবে।

    গ্রেস পিরিয়ড অর্থপ্রদানের দিন থেকে প্রকল্পের ধরন অনুযায়ী অর্থ প্রদান করা হয়

    3. বঙ্গবন্ধু অভিবাসী বৃহৎ পরিবার ঋণ

    আপনি কি বঙ্গবন্ধু অভিবাসী বৃহৎ পরিবার ঋণ সম্পর্কে জানতে চান বা এর সাথে জড়িত তথ্য গুলির সমন্ধে জানতে চান তাহলে নিচে দেওয়া তথ্য গুলি পড়ুন:

    বঙ্গবন্ধু অভিবাসী বৃহৎ পরিবার ঋণ এর খাতা সমূহ

    1. কৃষি খাত
    2. মৎস খাত
    3. কুটির শিল্প
    4. বাণিজ্যিক খাত
    5. প্রাণী খাত

    বঙ্গবন্ধু অভিবাসী বৃহৎ পরিবার ঋণের ধরণ

    বঙ্গবন্ধু অভিবাসী বৃহৎ পরিবার সাধারণত ২ ধরণের :

    1. প্রকল্প ঋণ
    2. চলতি পুঁজি বা নগদ ঋণ

    বঙ্গবন্ধু অভিবাসী বৃহৎ পরিবার ঋণ পাওয়ার যোগ্যতা

    1. এই লোন নেওয়া আবেদনকারী পরিবারের যেকোনো একজনকে বিদেশে থাকতে হবে
    2. এই লোন নেওয়ার জন্য প্রবাসীদের ন্যূনতম ১ বছর বিদেশে কাজ করতে হবে
    3. প্রকল্প বা প্রতিষ্ঠান পরিচালনার জন্য ঋণগ্রহীতার অবশ্যই যোগ্যতা, অভিজ্ঞতা বা প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণ থাকতে হবে
    4. যদি ব্যক্তি অন্য কোন ব্যাংক বা আর্থিক প্রতিষ্ঠানের খেলাপি হিসাবে চিহ্নিত হয়, তবে ঋণটি যোগ্য বলে বিবেচিত হবে না।
    5. মানসিক প্রতিবন্ধী ব্যক্তিরা রাষ্ট্রদ্রোহের ক্ষেত্রে ঋণের জন্য যোগ্য নয়।

    বঙ্গবন্ধু অভিবাসী বৃহৎ পরিবার ঋণ পাওয়ার প্রয়োজনীয় কাগজপত্র

    বঙ্গবন্ধু অভিবাসী বৃহৎ পরিবার ঋণ পাওয়ার প্রয়োজনীয় কাগজপত্র

    যদি আপনি বঙ্গবন্ধু অভিবাসী বৃহৎ পরিবার ঋণ নিতে চান তাহলে আপনাকে নিচে দেওয়া কিছু দরকারি কাগজপত্র তৈরী করতে হবে সেগুলি হলো :

    1. বিদেশে থাকা ব্যক্তির সার্টিফিকেট সম্পর্কিত সমস্ত ডকুমেন্টস সত্যায়িত ফটোকপি যেমন পাসপোর্টের সিল করা পৃষ্ঠা, ভিসা স্মার্ট কার্ডের সত্যায়িত ফটোকপি ইত্যাদি।
    2. এই লোন নেওয়ার জন্য আপনার অভিজ্ঞতা বা প্রশিক্ষণের প্রমাণপত্র এছাড়াও লাগবে আপনার সার্টিফিকেট ছাড়া প্রশিক্ষণ প্রধানের সত্যায়িত ফটোকপি।
    3. এই লোন পেতে আবেদনকারীকে পারিবারিক তথ্য ও জীবনবৃত্তান্ত, জাতীয় পরিচয়পত্রের ফটোকপি, বর্তমান ঠিকানা ও স্থায়ী ঠিকানাসহ পৌরসভা/ইউনিয়ন পরিষদের সার্টিফিকেটের সত্যায়িত ফটোকপি, নতুন তোলা তিনটি সত্যায়িত ছবিসহ আবেদনপত্র জমা দিতে হবে।
    4. এই লোনটি নেওয়ার জন্য দুই জামিনদারের জাতীয় পরিচয়পত্রের ফটোকপি, বর্তমান ঠিকানা ও স্থায়ী ঠিকানাসহ পৌরসভা/ইউনিয়ন পরিষদের সার্টিফিকেটের সত্যায়িত ফটোকপি, নতুন তোলা ২/৩টি সত্যায়িত ছবি জমা দিতে হবে।
    5. সর্বশেষ ট্রেড লাইসেন্সের ফটোকপি প্রদান করতে হবে।
    6. প্রত্যাখ্যাত খাতার সত্যায়িত ফটোকপি এবং বন্ধককৃত সম্পত্তির মালিকানার ডকুমেন্টস সহ সাম্প্রতিক বছরের ভাড়া জমা দিতে হবে এবং প্রকল্পের বিশদ বিবরণ যেমন প্রকল্পের ঠিকানা এছাড়াও প্রকল্পের অবস্থান জমা দিতে হবে।
    7. এই লোন নেওয়ার জন্য যদি আবেদনকারীর প্রকল্পটি নতুন হয়, তাহলে আপনাকে পরবর্তী দুই বছরের জন্য আপনার সম্ভাব্য আয়-ব্যয়ের একটি বিবৃতি জমা দিতে হবে।
    8. এই লোন নেওয়ার জন্য যদি অন্য কোন ঋণ থাকে, তার বিবরণ যেমন: কোন সংস্থা, এনজিও, ব্যাংক ঋণ, কত মেয়াদী। ঋণ খেলাপি (হ্যাঁ/না)। এই সমস্ত সম্পর্কিত তথ্য জমা দিতে হবে।
    9. এই লোন নেওয়ার জন্য ঋণ পরিশোধের এফিডেভিট যে আপনি সময়মতো ব্যাঙ্কে আপনার ঋণ পরিশোধ করবেন।
    10. এই লোন নেওয়ার জন্য সিআইবি রিপোর্ট জমা দিতে হবে।

    বঙ্গবন্ধু অভিবাসী বৃহৎ পরিবার ঋণ পাওয়ার প্রয়োজনীয় কাগজপত্র এর পিডিএফ ডাউনলোড করুন এখান থেকে।

    আরও পড়ুনঃ দেখুন কোন ব্যাংকে ডিপিএস এর লাভ বেশি ২০২১ (Profit Amount Of DPS)

    বিশেষ পুনর্বাসন ঋণ

    বিশেষ পুনর্বাসন ঋণ

    বন্ধুরা আপনারা কি জানেন যে হলো প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক এর মাধ্যমে সবচেয়ে অন্যতম প্রকল্প হলো বিশেষ পুনর্বাসন ঋণ প্রকল্প। এই প্রকল্প সম্বন্ধে জানার জন্য নিচে দেওয়া হয় লিংক এর মাধ্যমে পিডিএফ ফরমেট ফাইলটি ডাউনলোড করে নিন।

    বিশেষ পুনর্বাসন ঋণ এর পিডিএফ ডাউনলোড করুন এখান থেকে।

    শেষ কথা প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক লোন নিয়মঃ

    আশা করি আপনি প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক থেকে লোন নেওয়ার নিয়ম এবং তার যাবতীয় তথ্য পেয়ে গেছেন। যদি আমাদের এই আর্টিকেল টি আপনার পছন্দ হয় তাহলে কমেন্ট করতে ভুলবেন না। এছাড়াও নতুন নতুন সকল পোস্ট পেতে আমাদের ফেসবুক ও টুইটার এর অফিসিয়াল পেজে লাইক দিয়ে সাথেই থাকুন।

    অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

    0 Comments

    দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন emoji

    টেকইনফো এ-আই কী?