টেকইনফো এ-আই https://www.techinfoai.com/2021/08/find-my-device-in-google.html

হারানো মোবাইল ফোন খুঁজে পাওয়ার উপায়সমূহ

google find my device

হারিয়ে যাওয়া মোবাইল ফোন খুজে পাওয়া ধাপসমূহ

সারাবিশ্বে বর্তমানে মোবাইল ফোনের চাহিদা দিনে দিনে বেড়েই চলেছে। কেননা মোবাইল ফোন দিয়ে এখন ছোট খাটো অনেক কাজই করে ফেলা যায় আমাদের চাহিদা অনুযায়ী। অপরদিকে যারা গেমিং নিয়ে একটু বেশি আগ্রহী তাদের জন্যে বেশ ভাল রকমের চাহিদা পূরণ করে মার্কেটপ্লেসে ভাল রকমের স্থান দখল করে নিয়েছে এই মোবাইল ফোন গুলো যা কিনা দামের দিক থেকেও অনেক সাশ্রয়ী।

তবে আমাদের কাছে এই ডিভাইস গুলো সাশ্রয়ী এবং মানের দিক থেকে ভাল হয়ে থাকলেও মাঝে মাঝে আমাদের অনেক বিপদে পড়তে হয় যখন এই ডিভাইস গুলো আমাদের অজান্তেই অন্য কেউ হাতিয়ে নেয় বা চুরি করে। ফোন চুরি হওয়ার পরে আমাদের পড়তে হয় অনেক ঝামেলায়, গুরুত্বপূর্ণ তথ্য হাতিয়ে নেওয়ার ভয় থেকেই যায়। তবে আমরা চাইলে চুরি হয়ে যাওয়া ফোন গুলোও ট্রেস করতে পারি কিছু পদ্ধতি অবলম্বন করে।

আজ কালকের দিনে ফোন হারিয়ে যাওয়া কিংবা চুরি হয়ে যাওয়া নতুন কোনো বিষয় নয় আমাদের কাছে এটি সম্পর্কে আমরা জানি। তাই এন্ড্রয়েড ফোন হারিয়ে গেলে বা খুঁজে না পেলে কিংবা চুরি হয়ে গেলে ফোনে থাকা গুগলের “ফাইন্ড মাই ডিভাইস” ফিচার ব্যবহার করে আমরা  আমাদের হারানো ফোনটি খোঁজার চেষ্টা করতে পারি। চলুন তাহলে বেশি দেরি না করে জেনে নেয়া যাক, গুগল ফাইন্ড মাই ডিভাইস ফিচারটি ব্যবহার করে কিভাবে হারানো ফোন খুঁজে বের করতে পারি। এছাড়াও কীভাবে আমরা আমাদের  অ্যান্ড্রয়েড ফোনে ফাইন্ড মাই ডিভাইস ফিচারটি চালু করব সেটিও আজকে আলোচনা করব আপনাদের সাথে।

গুগল ফাইন্ড মাই ডিভাইস ফিচারটি কী?

বর্তমানে আমরা যে গুগলের ফাইন্ড মাই ডিভাইস এর সাথে পরিচিত এই ফিচারটি আগে এন্ড্রয়েড ডিভাইস ম্যানেজার নামে পরিচিত ছিল। বর্তমানে গুগল এর ফাইন্ড মাই ডিভাইস অ্যান্ড্রয়েড ফোনসমূহের জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ ফিচার, যার মাধ্যমে এই ডিভাইস গুলো ব্যবহারকারীগণ তাদের স্মার্টফোন, ট্যাবলেট ও স্মার্টওয়াচ খুঁজে বের করার পাশাপাশি চাইলে তা লক করে দিতে পারেন যেকোন স্থান থেকে। আর ফাইন্ড মাই ডিভাইস বলতে মূলত যা বুঝায় তা হলো গুগল প্লে সার্ভিস ও গুগল প্লে প্রটেক্ট এর একটি বর্ধিত সেবা। যদি কোনো ডিভাইস হারিয়ে যায়, সেক্ষেত্রে আপনি চাইলে সেই  ডিভাইসে থাকা ডাটা মুছেও দেওয়া যায় এই ফিচারটি ব্যবহার করে।

হারানো ফোন খুঁজে পাওয়ার পূর্বশর্তঃ

আপনি যদি গুগলের ফাইন্ড মাই ডিভাইস দিয়ে আপনার হারিয়ে যাওয়া ফোনকে খুজে বের করতে চান বা ট্রেস করতে চান তাহলে কয়েকটি বিষয় সম্পর্কে প্রথমে ক্লিয়ার ধারনা রাখতে হবে। পূর্বের ডিভাইস গুলোর জন্যে এই সার্ভিসটির সেবা নেওয়ার জন্যে একটি অ্যাপ ব্যবহার করতে হতো কিন্তু বর্তমানে মোবাইল ফোন গুলোর আপডেটের কারণের এখন আর সেই অ্যাপের প্রয়োজন পড়ে না। এখন সকল স্মার্টফোন ব্যবহারকারীগণ এই ফিচারটি পেয়ে যান ডিফল্ট ভাবেই, তাই এই নিয়ে চিন্তার তেমন কিছু নেই।

চলুন তাহলে দেখে নেই যে হারিয়ে যাওয়ার পর যদি আপনার অ্যান্ড্রয়েড ফোন খুঁজে পেতে চান, সেক্ষেত্রে আগে থেকেই কিছু বিষয় নিশ্চিত করার প্রয়োজন পড়বে। আপনার হারানো ফোনটি খুঁজে পেতে হলে যেসব বিষয় আগে থেকেই আপনাকে নিশ্চিত করতে হবেঃ

  1. আপনার হারিয়ে যাওয়া ফোনটি অবশ্যই অন করা থাকতে হবে।
  2. আপনার হারিয়ে যাওয়া ফোনে আপনার নিজের গুগল একাউন্ট লগইন করা থাকতে হবে।
  3. আপনার হারিয়ে যাওয়া সেই ফোনটি ওয়াইফাই বা মোবাইল ডাটাতে কানেক্টেড থাকতে হবে।
  4. হারানো সেই ফোনে গুগল প্লে স্টোর চালু থাকতে হবে।
  5. হারানো ফোনের লোকেশন সার্ভিস চালু থাকতে হবে।
  6. এবং ফাইনালী আপনার সেই ফোনে ফাইন্ড মাই ডিভাইস ফিচারটি চালু থাকতে হবে।

গুগল ফাইন্ড মাই ডিভাইস ফিচার চালু করার নিয়মঃ

আপনি যদি গুগল এর ফাইন্ড মাই ডিভাইস ফিচারটির সুবিধা বা সেবা পেতে চান তাহলে অবশ্যই আপনাকে উপরে উল্লেখিত শর্তসমুহ নিশ্চিত করতে হবে। আপনার যদি উপরের বর্ণিত শর্তসমুহ ঠিক থাকে তাহলে চলুন এবার জেনে নেওয়া যাক, যে কিভাবে ফাইন্ড মাই ডিভাইস ফিচারটি চালু ও ঠিকভাবে সেট করবেন।

গুগল ফাইন্ড মাই ডিভাইস চালু করার পদ্ধতিসমূহঃ

  1. আপনার ফোনে ওয়াইফাই বা মোবাইল ডাটা চালু করে ইন্টারনেটের সাথে সংযুক্ত করে নিন।
  2. এরপর আপনার ফোন থেকে Settings অপশনে প্রবেশ করুন।
  3. এখন একটু নিচের দিকে স্ক্রল করে Google মেন্যুতে প্রবেশ করুন।
  4. এরপর গুগল থেকে Find My Device অপশনটিতে প্রবেশ করুন।

এখন আপনার ফোনের সেটিংস এর কাজ মোটামুটিভাবে শেষ আপনি চাইলে এখন আপনার সেই ফোনের জন্য ফাইন্ড মাই ডিভাইসটি চালু করে দিতে পারেন। এছাড়াও যদি আপনার ফোনের সেটিংস অ্যাপে যদি সার্চ করার ফিচারটি থাকে, তাহলে আপনি সরাসরি সেই সার্চ ফিল্ডে Find My Device লিখে সার্চ করে আপনার কাক্ষিত ফিচারটি খুঁজে নিতে পারবেন।

ভিন্ন ভিন্ন কোম্পানি ভেদে এক একটি ফোনের সেটিংস বা ফিচার আলাদা হতে পারে, তাই আপনার যদি এই ফিচারটি যদি খুজে পেতে সময় লাগে তাহলে আপনি চাইলে সেক্ষেত্রে আপনার মোবাইল ডিভাইস নির্মাতে কোম্পানির সাপোর্টে  যোগাযোগ করতে পারেন এতে করে তারাই আপনাকে খুজে পেতে সহযোগীতা করবেন।

এখন আপনার ফোনে গুগলের সেই ফাইন্ড মাই ডিভাইস ফিচারটি আসলেই চালু হয়েছে কিনা, তা বুঝতে গুগল প্লে স্টোরের ডিভাইস স্ট্যাটাস ফিচারটির সাহায্য নিতে পারেন। আপনার ফোনে থাকা যেকোনো ব্রাউজার থেকে play.google.com/settings লিখে এই লিংকে প্রবেশ করুন। এটির মাধ্যেমে আপনার গুগল একাউন্টের সাথে সংযুক্ত ডিভাইসগুলো দেখানো হবে। আপনি যে ডিভাইসটি সবেমাত্র সংযুক্ত করেছেন, আপনার ব্রাউজারে প্রদর্শিত তালিকাতে সেটি দেখানো হচ্ছে কিনা এই বিষয়টি নিশ্চিত করুন।

আপনি যদি ব্রাউজারে দেখানো সেই তালিকায় আপনার ফোন দেখতে না পান, সেক্ষেত্রে ফাইন্ড ডিভাইস সার্ভিসটি অফ করে পুনরায় অন করে দেখতে হবে সেট সংযুক্ত হয়েছে কিনা ঠিকভাবে।

আরেকটি বিষয়ে লক্ষ রাখতে হবে যে আপনার ফোনের লোকেশন সার্ভিস যদি বন্ধ করা থাকে সেক্ষেত্রেও গুগলের ফাইন্ড মাই ডিভাইস সার্ভিসটি সঠিকভাবে কাজ করবেনা। তাই ফাইন্ড মাই ডিভাইস ঠিকমত কাজ করার ক্ষেত্রে অবশ্যই পূর্বশর্তসমুহ পূরণ করতে হবে।

হারিয়ে যাওয়া ফোন খুঁজে পাওয়ার উপায়ঃ

আমাদের হারিয়ে যাওয়া ফোন গুলোকে খুঁজে বের করার জন্যে গুগল একাউন্টের অর্থাৎ জিমেইল এর নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে টু-স্টেপ ভেরিফিকেশনের মত গুরুত্বপূর্ণ সব কৌশল বা সিকিউরিটি স্টেপ গুলোকে অবলম্বন করা উচিত। এখন চলুন তাহলে জেনে নেওয়া যাক, ফাইন্ড মাই ডিভাইস ব্যবহার করে আমাদের হারিয়ে যাওয়া ডিভাইস কিভাবে খুঁজে পাবো সেটির নিয়ম গুলো।

আপনার হারানো মোবাইল খুঁজে পেতে কোনো একটি মোবাইল বা কম্পিউটারে ব্রাউজার থেকে google.com/android/find টাইপ করে এই লিংকে প্রবেশ করুন। এরপরে আপানার ফোনে থাকা সেই গুগল একাউন্ট লগইন করুন। আপনি লগইন করার পরে গুগোল ফাইন্ড মাই ডিভাইস আপনার ডিভাসটি খুঁজে বের করার চেষ্টা করবে। আপনার হারিয়ে যাওয়া সেই ফোনের যদি লোকেশন ঠিক থাকে, সেক্ষেত্রে ম্যাপে আপনার ফোনের অবস্থান স্পষ্টভাবে দেখতে পারবেন।

এই ম্যাপে যদি আপনার ফোন দেখতে পান, তাহলে এখানে Play Sound নামের যেই অপশন রয়েছে সেখানে ক্লিক করলে আপনার হারিয়ে যাওয়া ফোনটি শব্দসহকারে বাজতে শুরু করবে। তবে আপনি যদি লোকেশন এর থেকে দূরে থাকেন তাহলে সেই লোকেশনের কাছাকাছি গিয়ে সাউন্ড প্লে করবেন। তাহলে খুব সহজে আপনি আপনার হারিয়ে যাওয়া অ্যান্ড্রয়েড ফোন খুঁজে বের করতে পারবেন গুগলের ফাইন্ড মাই ডিভাইস সার্ভিস এর মাধ্যেমে।

এছাড়াও আপনার ডিভাইসের মডেল নেইম, শেষ কখন এটিকে শনাক্ত করা গেছে, এটি কোন নেটওয়ার্কে কানেক্টেড আছে ও অবশিষ্ট ব্যাটারি লাইফ, ইত্যাদি সমস্ত তথ্য দেখা যাবে এই সার্ভিসটির মাধ্যেমে।

ফোন লক করার নিয়মঃ

আপনার মোবাইল ফোনটি যদি হারিয়ে যায় সেক্ষেত্রে আপনি চাইলে হারানো ফোন লক করে দিতে পারবেন এই সার্ভিসটির মাধ্যেমে, এতে করে হবে কি অন্য কেউ যদি আপনার ফোন হাতে পায় তারপরেও সে ব্যবহার করতে না পারবেনা। তাহলে চলুন জেনে নেই, হারানো ফোন লক করার সেই নিয়মটি।

আপনার ফোনটি লক করতে হলে ফাইন্ড মাই ডিভাইস এর ওয়েবসাইট google.com/android/find এ প্রবেশ করে আপনার সেই ডিভাইসটি খুঁজে বের করুন। এখন যদি আপনি আপনার সেই হারিয়ে যাওয়া ডিভাইসটি খুঁজে পান সিকিউর অপশন থেকে Lock এ ক্লিক করুন। এখন আপনি যদি লকস্ক্রিনে দেখানোর জন্য একটি মেসেজ ও ফোন নাম্বার লিখে Lock এ ক্লিক করেন তাহলে হারানো ফোন লক হয়ে যাবে। অপর প্রান্তে আপনার হারানো ফোনের স্ক্রিনে আপনার দেওয়া মেসেজটি ও ফোন নম্বরটি দেখানো হবে যাতে সহজেই বোঝা যায় যে এটি একটি হারানো ফোন। তখন যেই ব্যক্তি এটি পেয়ে থাকবে সে যদি ভাল মনের মানুষ হয়ে থাকে তাহলে আপনার সাথে যোগাযোগ করতে পারবে খুব সহজেই।

ফোনের ডাটা ডিলিট করার নিয়মঃ

আপনি অনেক চেষ্টার পরেও যদি আপনার সেই ফোনটি উদ্ধার করতে ব্যর্থ হয়ে যান তাহলে সেক্ষেত্রে নিরাপত্তার খাতিরে আপনি উক্ত ফোনে থাকা সকল ডাটা ডিলিট করতে পারেন অনায়াসেই। তবে এখানে আরেকটি মজার ব্যাপার হলো, হারানো ফোনের এই ডাটা মুছা বা ডিলেটের ফিচার আপনার হারিয়ে যাওয়া ফোন অফলাইনে থাকলেও ব্যবহার করা যাবে। সেক্ষেত্রে আপনার ফোনটি যখনই অনলাইনে কানেক্টেড হবে ঠিক তখনই সাথে সাথে সমস্ত ডাটা রিসেট হয়ে যাবে।

তাই আপনার হারানো ফোনের ডাটা ক্লিয়ার বা ডিলেট করতে google.com/android/find এ প্রবেশ করে আপনার ডিভাইসটি খুঁজে বের করুন। এখানে আপনার ডিভাইস খুঁজে পেলে আপনি সেখান থেকে Erase নামের যেই অপশন রয়েছে সেখানে ক্লিক করুন। এরপর আপনি আসলেই ডাটা গুলো ডিলিট করতে চাচ্ছেন কিনা তা নিশ্চিত করতে Erase বাটনে ক্লিক করলেই অনলাইনে থাকা সাপেক্ষে হারানো ফোনের সকল ডাটা ক্লিয়ার হয়ে যাবে।

থানায় ডায়েরিঃ

আপনার মোবাইল ফোনটি হারিয়ে গেলে উপরের পদ্ধতিতে চেষ্টা করে দেখুন যদি সমাধান হয়ে যায় তাহলে আপনি অনেক ভাগ্যবান ব্যক্তি। অপরদিকে যদি সমাধান না হয় তাহলে দ্রুত নিকটস্থ থানায় গিয়ে জিডি করতে পারেন সেই ফোনের সমস্ত তথ্য দিয়ে। আপনার হারানো বা চুরি যাওয়া ফোনের জন্য জিডি করতে প্রয়োজন যা যা লাগবে তা হচ্ছে একটি আবেদনপত্র যে ব্যাপারে থানা থেকে আপনাকে সহায়তা করা হবে। এছাড়াও বিস্তারিত তথ্যের জন্য পুলিশ কনট্রোল রুম ও ন্যাশনাল হেল্প ডেস্ক, ৯৯৯ এ কল করে সাহায্য নিতে পারেন। এতে করে পুলিশ প্রশাসন আপনাকে সহযোগীতা করবে।

উপরেরে আলোচনা গুলো যদি আপনি পড়ে থাকেন তাহলে নিশ্চিতভাবে বলায় যায় যে আপনি নিজে থেকেই নিজের ফোন খুজে বাহির করতে পারবেন গুগোল মাই ডিভাইসের রিকুয়ারমেন্ট গুলো পূরন হয়ে থাকলে। সকল প্রকার টেকনিউজ গুলো পেতে আপনি আমাদের ফেসবুক পেজ বা টুইটারের অফিসিয়াল পেজে লাইক দিয়ে সাথেই থাকুন। তাহলে নতুন কোন তথ্য পাবলিশ করার সাথে সাথেই আপনার কাছে নটিফিকেশন চলে যাবে। 

ডাটা ও ব্যাটারি সাশ্রয়ী কয়েকটি লাইটওয়েট অ্যাপস সম্পর্কে জানতে এই পোস্টটি পড়ুন আরও দেখুন বা এখানে ক্লিক করুন

অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন emoji

টেকইনফো এ-আই কী?